Wednesday, January 27, 2016

Bengal Law and Order situation: What is the present scenario & where it is going wrong in respect of communal tension/clashes & rape cases.



Fact is criminals and rapists have no religion & law should be same for all, also more you want to suppress the truth about crime the more it will hit you back.**

That’s exactly where present Trinamool Congress (TMC) government is doing mistake as a result in spite of being one of the most peaceful & safe state for all, Bengal is now projected as a communal tension-full state by opposition parties and by Leftist plus Saffronic media.

Let me accept frankly from Park Street to Jamuria (via Kamduni) few incidents of rape cases are really some rare black spot on Mamata Banerjee headed TMC ruled West Bengal and majority of accused in these incidents are Muslims.
Above all West Bengal Police and West Bengal Government initially did some mistake by not taking strict action and by trying to suppressing the facts.

Although these are very rare and stray incident compare to almost 5years rule of TMC Govt in West Bengal which is having more than 9cr population (8% of total India’s population) but it has put bad image of West Bengal more due to Leftist & Saffronic #Presstitute media projected it with lots of exhortation and adding lots of spices in it. Above all few loose statements from some political leaders added more Color in to these incidents.

Let me also admit apart from these rape cases unfortunately some very low intentional communal tension cases had also happened in West Bengal, under Mamata Banerjee’s last 5years peaceful ruling in West Bengal.


Here very important fact is compare to national scenario these are very nominal during this period and
in West Bengal no one has died in communal clashes during Mamata Banerjee’s tenure so far.


But due to two reasons (**) which I already mentioned, these incidents are projected in a much bigger way.

For example Malda (Kaliachak) communal clash, there were hardly 12000 to 14000 Muslim protesters but media showed it as 2.5Lc angry & violent mob. 
Apart from some stone throwing incident no violent incidents of communal clashes happened are but Saffronic media reported that lots of houses and temples are vandalised. Not a single person died but some media reported even deaths. Please note firing police station & BSF vehicles is not a communal violence it’s a protest against administration.

In Malda (Kaliachak) riot main problem was West Bengal Government and Police wanted to hide this incident totally which became boomerang.

Same thing is happening in Jamuria (Asansole) today; where one rape & murder case is getting Color due to callas administration as they tried to stop Local MP Union Minister Babul Supriyo from visiting the place by sitting section 144. Firstly police refused to register missing diary of a Hindu girl who was allegedly abducted & raped by some Muslim boys thereafter they’re doing this act which is bringing total media attention to Jamuria unnecessarily.

As I told that criminals have no religion/cast & more you suppress the fact more it will become boomerang for you; this is exactly what happened with TMC.
Hope Trinamool Congress will realize and correct these aspects as early as possible.   

Foot Note: I knew it that my TMC friend & my BJP friend both will be disappointed with my this article but as I told in top & cleared in twitter (@KOLLEO) that for me #IndiaFirst & truth are the priority.


Please see other posts in this blog page by clicking "Home" or from "Popular Posts" / "Archives" sections, and if any remarks please post. 
Thanks & Vande Mataram!! Saroop Chattopadhyay.

Monday, January 25, 2016

Once upon a time (Part – 2) an English Poem written by Saroop Chattopadhyay in 2002 after finalizing Ruby as his life partner.



                                        Once upon a time – 2
                             Written by Saroop Chattopadhyay in 2002 after finalizing Ruby as his life partner.


Once upon a time when

                        I was searching for life partner,

I found lots of glittering gold

                        And became blind with the glitter



Once upon a time when I was blind

                        I heard some sweet music of jewels,

But when the music became rumpus

                        I became confused.



Once upon a time when I was confused

                        To select the most specious

Thing of my life,

                        I became worried.



Suddenly I found a red Ruby

                        This was lying far away from me,

Somehow I realize it was only for me and placed it in my heart

                        With the hope we will never be apart.

                       **************************************************
                                      To be continued………
For Once upon a time – 1 please follow this link:


Please see other posts in this blog page by clicking "Home" or from "Popular Posts" / "Archives" sections, and if any remarks please post. 
Thanks & Vande Mataram!! Saroop Chattopadhyay.

Friday, January 22, 2016

100 Netaji Files declassified By PM Sri Narendra Modi Netaji Subhas Chandra Bose’s secret Files Declassification & Netaji’s role in some important international events (like Vietnam War, Tashkent Treaty etc) even after 1945. Also what happened to Netaji Bose, Lal Bahadur Shastri & Azad Hind Bank’s (INA’s) treasury?? Was Gumnami Baba & Netaji was same person??

Edited on 23rd January 2016 on Netaji Subhas Chandra Bose's 120th Birthday:


Today January 23, 2016 is a historical day as the Indian Government begins the process of declassification of Netaji papers as PM Narendra Modi has declassified total 100 secret Netaji Subhas Chandra Bose files & started the process of Declassification.
The TMC government in West Bengal released 64 files on 18th September 2015. These files pertain to Sarat Chandra Bose, Netaji Subhas Chandra Bose, members of the Bose family, Indian National Army (INA) officials, Congress leaders and friends who were kept under surveillance by the Congress government for a couple of decades after independence, from 1948 to 1968.

This declassification is a result of declassification movement by many individuals, activists and organizations, who have been fighting for many years. The governments since independence, not only suppressed all facts, but also ensured that the true history of the Indian freedom struggle does not reach the people.

To know more details about how declassification is finally achieved please read following article:

Netaji Files Declassification: From Deeclassification movement, Mission Netaji & Mamta Banerjee to Narendra Modi. But truth must come out WHAT HAPPENED TO NETAJI..

 
But as an activists since long (although I'm not a publicity savvy like some of my colleagues) cum freelance journalist I can’t deny some proven facts which are as follows:

1). Netaji Subhas Chandra Bose Bose in Vietnam War:

Claimed Facts (raw):
* Secret meeting between Bose, Ho Chi Minh and Chinese general Liu-Po-Cheng on 19th August 1945. (day after air-crash)
* War correspondent Mr. Alfred Wagg sighted Bose at Saigon (beyong data of air-crash)
* Some papers talking about Bose being sighted in ari-port in France in late sixties.


2). Netaji Subhas Chandra Bose was also seen at Tashkent with Lal Bahadur Shastri during signing of Tashkent treaty.
 
The face mapping shows man with Lal Bahadur Shastri at Tashkent could be none other than Netaji Subhas Chandra Bose.

A forensic face-mapping report submitted by a British expert, which is yet to be wholly ascertained, has found strong resemblance between a man – sharing space with the former prime minister Lal Bahadur Shastri  in a photograph clicked in Tashkent – and Netaji Subhas Chandra Bose.

Neil Miller, who has presented expert opinion in cases at UK high courts and the International Court of Justice in Hague, as saying that the face mapping of the mystery man seen in the Tashkent "lends support leaning on strong support to the contention that the person seen in the picture and Subhas Chandra Bose are one and the same person".
The face-mapping report may also revive controversies surrounding the sudden demise of Shastri in Tashkent in 1966.
Some researchers believe maybe Lal Bahadur Shastri died as he became aware of true story of India’s independent and Nehru’s ill-act.
3). Mystery of Netaji's missing treasure (Azad Hind Bank/ INA ‘s treasury):
Secret government papers reveal Nehru was told of Bose's missing war chest of 100kg in gold and jewels, but former PM failed to order a probe.
On January 29, 1945, Indian residents of Rangoon, the capital of Japanese- occupied-Burma, held a grand week-long ceremony. It was the 48th birthday of Netaji, the head of the provisional government of the Azad Hind. Netaji was weighted against gold, “somewhat to his distaste”, Hugh Toye notes in his biography The Springing Tiger: The Indian National Army and Netaji Subhas Chandra Bose.

Over Rs 2 crore worth of donations were collected that week, including more than 80 kg of gold. Netaji had raised the largest war chest by any Indian leader in the 20th century. But by 1945, this was to no avail as the Japanese army and the INA crumpled in the face of a resurgent Allied thrust into Burma. Netaji retreated to Bangkok on April 24, 1945, carrying with him the treasury of the provisional government. 

There are conflicting accounts on how much gold he took. Dinanath, chairman of the Azad Hind Bank interrogated by British intelligence soon after the war, said Netaji left with 63.5 kg of gold.
The Indian government (more specifically greedy Jawaharlal Nehru & Congress party) became interested in the INA treasure only four years later, in May 1951, when diplomat, K.K. Chettur, headed the Indian liaison mission in Tokyo - as India was yet to establish full-fledged diplomatic relations with Japan. Chettur noted with dismay the return of Ayer. He was now a director of publicity with the government of Bombay state. Now, seven years later, Ayer was going back to Tokyo on what he claimed was a holiday but actually with a secret agenda. 

Thereafter  some reports said Nehru brought hundreds of trunk loaded with Gold & money but no specific document and proves are available.
4) Death of Alexander Litvineko:

As per Washington Post’s news it’s now confirmed that Putin implicated in fatal poisoning of former KGB officer Alexander Litvinenko at London hotel in 2006. The weapons of choice: one teacup and one massive dose of a rare nuclear isotope, polonium.

5) Gumnami Baba (Bhagwanji):

There are enough reasons to believe Gumnami Baba or Bhagwanji was Netaji Himself.

Forensic evidence, based on the teeth recovered from Bhagwanji’s assets and handwriting – both English and Bangla – were examined by a top expert and said to be a match.

Dr. Priyabrat Bannerjee was one of those 13 who saw Bhagwanji alias Gumnami Baba on his last journey.  He was – along with his family – in touch with Bhagwanji in his last years, after Saraswati Devi had come looking for his father Dr. TC Bannerjee – a Homeopathic doctor – to take care of a patient who wanted to remain anonymous.  In this video, Dr. Priyabrat Bannerjee explains the meetings with Bhagwanji and why he – and his family are convinced that Bhagwanji was indeed Netaji Subhash Bose himself.

Many prominent people in India have stated publicly from time to time about the existence of Netaji as a sanyasi and Bhagwanji specifically.  The most important of them being Ms. Leela Roy, a close associate of Netaji.  She was in regular touch with Bhagwanji as her letters to him and his letters back to her show.  Based on the letters from the property of Bhagwanji, the following comes out clearly.
 
Justice M K Mukherjee, the former Supreme Court judge who led the Justice Mukherjee Commission Investigation (JMCI) into the mystery of Netaji’s life and death, made a remark in Bengali off-the-camera, though the camera was inadvertantly recording.  He said that “he is 100 per cent sure” that Bhagwanji of Faizabad was Netaji in disguise. This clip is from Times Now and was provided by filmmaker Amlan Ghosh, who captured Justice Mukherjee’s off the record comment

Conclusions: 

It’s clear that Netaji wasn’t died in Taihaku air crash on 18th August 1945.
Netaji was very much active and took lead role in several important international developments thereafter.

Both Lal Bahadur Shastri & Netaji Subhash Chandra Bose may not die a natural death; to cover-up a larger conspiracy and to loot Azad Hind Bank’s money they maybe murdered by poisoning or something short of that or it may be Bhagwanji was Netaji himself; but what compelled him to remain in disguise??



Now for rest I’m keeping my fingers crossed until more evidence come out by declassification or by further investigations. 


Please see other posts in this blog page by clicking "Home" or from "Popular Posts" / "Archives" sections, and if any remarks please post. 
Thanks & Vande Mataram!! Saroop Chattopadhyay.

Industry scenario in West Bengal under Mamata Banerjee, lots of prospects in Bengal & Bengal is growing in spite of Left parties & paid media’s anti-propaganda. A Bengali article by Smt.Sreeparna Roy.


বাম সরকারের মহান অবদানে ৩৪ বছরে বাংলার শুকিয়ে যাওয়া শিল্পাঙ্গনের মরুভূমিকে বছরের পরিবর্তনের সরকারের নতুন ভাবে সজীব করে তোলার প্রচেষ্টা.......
 
"রাজ্য সরকারের দাবী" বলে দায় এড়ানো কৌশলী প্রচারে নয়... বাজারি সংবাদ মাধ্যমের অতৃপ্ত চাহিদার জ্বালা মেটানোর ব্যাঙ্গাত্মক মিথ্যা প্রচারেও নয়... সাফল্যের নিশব্দ জয়যাত্রায় বাংলার শিল্পায়ন কর্মসংস্থানের বদলে যাওয়া পরিবর্তিত চালচিত্রের আসল রুপ....

বিনিয়োগের উৎসাহদানে ল্যান্ড ব্যাঙ্ক, আবেদন প্রক্রিয়ায় সিঙ্গল উইন্ডো, ১৪ ওয়াই ধারার সঠিক প্রয়োগ, সঠিক সময়ে শিল্প সংস্থা গুলিকে ইনসেনটিভ প্রদান,অর্থ জমা করার দিনের মধ্যে জমির পজেশন হস্তান্তর করা, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুত সরবরাহ বাংলার শিল্পের সামগ্রিক ছবিটাই বদলে দিয়েছে।

প্রতিটি নতুন প্রকল্পের আবেদন আসা মাত্র সেই প্রকল্পের সাথে একজন করে সরকারি অফিসার কে প্রজেক্ট অফিসার হিসেবে যুক্ত করে দেওয়া হচ্ছে প্রকল্পের দ্রুত রূপায়ণের স্বার্থে এবং বিনিয়োগকারীর সাথে সবসময় যোগাযোগ রেখে তাদের সুবিধা অসুবিধার দিকে নজর দেওয়ার জন্য।
মৌলিক ভাবনায় বাংলার শিল্পের উন্নয়নে রাজ্যের শিল্পপতিদের নিয়েই টাস্ক ফোর্স গঠন করে তাদের হাতেই দিক নির্দেশ এর ভার সঁপে দিয়ে রাজ্য সরকার শিল্পের উন্নয়নে তার সদিচ্ছার প্রমাণে মাস্টার স্ট্রোক দিয়েছেন।

পরিবর্তনের চার বছরে ৮৪,২১১.০০ কোটি টাকার নতুন শিল্প বিনিয়োগ এই বাংলায়…. যেগুলোর মধ্যে কিছু কিছু সংস্থা ২০১৩-১৪ আর্থীক বছরে উৎপাদন শুরু করেছে (ডালমিয়া গ্রুপের ৬০০ কোটির সিমেন্ট কারখানা, জনসন এর সেরামিক কারখানা,হলদিয়ায় ৩৪০০ কোটি টাকা বিনিয়োগে সি এস সির তাপ বিদ্যুত কেন্দ্র ইত্যাদি), কিছু সংস্থা যেমন সি এল, একস্প্রো, আই এফ বি এগ্রো , উৎকর্ষ পাইপ , বেঙ্গল বেভারেজ ২০১৪-১৫ আর্থিক বছরে তাদের উৎপাদন শুরু করে দিয়েছে। বাকিগুলো নির্মাণাধীন। ম্যাট্রিক্স,সেল, এন টি পি সি,টাটা হিতাচি, ফিউচার গ্রুপ, রিলায়েন্স,টাটা মেটালিক্স, কেভেন্টার্স,আই টি সি,টাটা হাউসিং,চাংগী ,কেম্পিনস্কির( যেগুলোর নির্মান কাজ চলছে),মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্স জিও জি, জিন্দাল সিমেন্ট এবং জিন্দাল পাওয়ার প্লান্ট ইত্যাদি বহু নামী দামী শিল্প সংস্থার বিনিয়োগে রাজ্যের অর্থনৈতিক এবং সামাজিক পরিকাঠামোর আমুল পরিবর্তন নিয়ে আসবে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে।জিন্দালদের সিমেন্ট ফ্যাক্টারি এবং পাওয়ার প্ল্যান্ট প্রকল্পের কাজ চালু হয়ে গেছে শালবনিতে I এই উপরোক্ত শিল্প সংস্থার বিনিয়োগে বিশাল পরিমানে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে রাজ্যে।এছাড়া আরও ,৯৮,৬২৭ কোটি টাকার বিনিয়োগের প্রস্তাব দ্রুত কার্যকর করার লক্ষে অনেকটাই এগিয়ে গেছে বর্তমান সরকার I

নৈহাটিতে সরকারি উদ্যোগে নির্মীয়মান ইলেক্ট্রনিক্স হাব যা পূর্ব ভারতের সবচেয়ে বড় ইলেক্ট্রনিক্স হাবে পরিনত করার রাজ্য সরকারের প্রচেষ্টায় ইতিমধ্যেই দেশ বিদেশের বড় বড় ইলেক্ট্রনিক্স কোম্পানীগুলি তাদের বিনিয়োগ সুনিশ্চিত করেছে।

ক্ষুদ্র, মাঝারি ছোট শিল্পে বাংলা ২০১৩-১৪ আর্থিক বছরে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ভারতে প্রথম স্থান লাভ করেছে। এই ক্ষেত্রে ব্যাপক সাফল্যের প্রমান পাওয়া যায় ব্যাঙ্ক লগ্নির পরিমান ১০৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৪৩৩১ কোটি থেকে ৮৯০০ কোটি তে পৌছে যাওয়া। এই জয়যাত্রায় ৫০,৩৭০ জন মানুষের কর্মসংস্থান নিশ্চিত হয়েছে এই তিন বছরে।

বাংলার সম্ভাবনাময় শিল্পের মধ্যে অন্যতম আই টি সেক্টরে টি সি এসের রাজার্হাটের প্রকল্পের কাজ এগিয়ে চলেছে দ্রুতগতিতে যেখানে বছরে ২০,০০০ কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হতে চলেছে, এছাড়াও উইপ্রো কগনিজেন্ট আই টি সি ইনফোটেক তাদের বিপুল বিনিয়োগের প্রস্তাব সরকারের কাছে রেখেছেন যা বাস্তবায়নে রাজ্য সফটওয়ার রপ্তানিতে দেশের মধ্যে অন্যতম স্থান লাভ করবে।

বেঙ্গল বীরভূম কোল ফিল্ডস লিমিটেড নামে নতুন একটা কোল কোম্পানী তৈরী হয়েছে যার প্রধান শেয়ার হোল্ডার হলো আমাদের পশ্চিম বঙ্গ.. এছাড়াও পাঞ্জাব কর্নাটক উত্তর প্রদেশ তামিলনাড়ু বিহার এই পাচ রাজ্য এবং বেসরকারী সংস্থা সৎলুজ জল বিদ্যুত নিগম লিমিটেড হলো এই নতুন কোম্পানীর অন্যান্য শেয়ার হোল্ডার। রাজ্যের বীরভূম জেলার দেওচা পাচামী এলাকায় এই কোল কোম্পানী অবণ্টিত কোল ব্লকে নিজেদের পরিকাঠামো গড়ে তুলবে কয়লা উত্তোলনের জন্য যেখানে অনুমান করা হচ্ছে প্রায় বিলিয়ন টনস কয়লা মজুত আছে। কয়েক লক্ষ প্রত্যক্ষ কর্ম সংস্থান ছাড়াও বিশাল এলাকার আর্থ সামাজিক পরিকাঠামোর ব্যাপক উন্নয়নের হাত ধরে সমগ্র বীরভূম জেলার চেহারাটাই বদলে যাবে। অপ্রত্যক্ষ ভাবে আরও কয়েক লক্ষ কর্মসংস্থান ছাড়াও এলাকার মানুষের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি হবে চোখে পড়ার মতন।

২০১৪-১৫ আর্থিক বছরে পশ্চিমবঙ্গ বিনিয়োগে চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে।২০১১ থেকে ২০১৬ জানুয়ারি মাস পর্যন্ত নতুন শিল্পে রাজ্যে .৫৫ লক্ষ মানুষের কর্মসংস্থান সুনিশ্চিত হয়েছে। রাজ্য সরকার সরকারি কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে ২০১১ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ,৩২,০০০ টি নতুন পদের সৃষ্টি করে নিয়োগ প্রক্রিয়া প্রায় সম্পুর্ন হয়ে গেছে যার মধ্যে ৪৩,৪৭২ জন প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক শিক্ষক, ৪০,০০০ জন পুলিশ কনস্টেবল এবং ৪০০ জন সাব ইনস্পেক্টর নিয়োগ সম্পূর্ণ হয়েছে। চুক্তির ভিত্তিতে ,৩০০০০ জন সিভিক পুলিশ নিয়োগ সম্পূর্ণ হয়েছে। ২০১৫-১৬ আর্থিক বছরে আরও এক লক্ষ্য ৯০ হাজার সরকারি পদে নিয়োগ মঞ্জুর করেছেন রাজ্য মন্ত্রীসভা যার নিয়োগ প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে.... এর মধ্যে ৭০ হাজার স্কুল শিক্ষক , ৬০ হাজার গ্রুপ সি এবং ৬০ হাজার গ্রুপ ডি কর্মী। লক্ষ্য ৩০ হাজার সিভিক পুলিশের মাহিনা একলাফে ২৮০০ থেকে ৫৫০০ করে দেওয়া হয়েছে।

শিল্পস্থাপনের অনুকূল পরিবেশ স্থাপনে বিভিন্ন রাজ্য কী ধরনের সংস্কারের পদক্ষেপ গ্রহন করেছে তার ভিত্তিতে ৩২ টি রাজ্য কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গুলিকে নিয়ে একটি রিপোর্ট তৈরি করেছে কেন্দ্রীয় শিল্প বানিজ্য দফতর বিভিন্ন সংস্থার সাহায্যে এবং সেই রিপোর্টে ৭০.১৪ পয়েন্ট পেয়ে প্রথম হয়েছে গুজরাট এবং আমাদের পশ্চিমবঙ্গ ৪৬.৯০ পয়েন্ট পেয়ে একাদশ স্থান পেয়েছে....আনন্দে আত্মহারা না হলেও যথেষ্ট আশাপ্রদ এই সার্ভে রিপোর্ট.... অন্তত সর্বভারতীয় স্তরে বাংলার শিল্প আবার আলোচনার জায়গায় ফিরে এসেছে লাস্ট বেঞ্চের বাঁধা জায়গা ছেড়ে এটা অন্তত প্রমান করা গেছে।

সম্প্রতি হয়ে যাওয়া বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিট রাজ্য সরকারের শিল্প নীতির ভুয়সী প্রশংসা করে দেশের প্রায় সমস্ত শিল্পপতিরা রাজ্যে বিনিয়োগে সম্মত হয়েছেন যা এক কথায় অভূতপূর্ব। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিরা সন্মেলনে যোগ দিয়ে রাজ্যের অর্থনীতি এবং শিল্পনীতির সাফল্যে উচ্ছাস প্রকাশ করেছেন এবং বাংলার সার্বিক উন্নতির বাস্তব চিত্রকে মুক্ত কণ্ঠে স্বীকার করে মুখ্য মন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির দক্ষতায় অভিভূত হয়েছেন...

পরিশেষে বলি ....... বাংলার মানুষকে ভুল বুঝিয়ে বাংলার অগ্রগতি কে রোখা যাবে না এটা মাথায় রাখলে ভালো করবেন বাংলার শত্রু বাজারি সংবাদ মাধ্যম। যদি ক্ষমতা থাকে তাহলে তথ্য দিয়ে প্রমান করুণ যে সাফল্যের ছবি পরিবর্তনের সরকার নিজেদের পরিশ্রম, মেধা আর সদিচ্ছা দিয়ে একে চলেছেন এই বাংলায় তা মিথ্যা,ভুয়ো.....
আর যদি তা না পারেন তাহলে বাংলার মানুষের কাছে ক্ষমা চেয়ে চুপ করে বসে থাকুন....
সরকারকে তার কাজ করতে দিন।
 
This article is written by my facebook friend Mrs. Sreeparna Roy, as I liked it & mostly agreed with it so I’m just re-publishing it in my blog for wider circulation.


Please see other posts in this blog page by clicking "Home" or from "Popular Posts" / "Archives" sections, and if any remarks please post.
Thanks & Vande Mataram!! Saroop Chattopadhyay.